অপু বিশ্বাসের নিজেকে ফিরে পাওয়ার মিশন

আজ শুক্রবার দুপুরে ব্যায়ামাগারে অপু বিশ্বাস। ছবি: প্রথম আলো

১০ এপ্রিল ২০১৭, সন্তানসহ টেলিভিশনের পর্দায় অপু বিশ্বাস যখন হাজির হন, তখন তাঁর ওজন ছিল ৯৫ কেজি। এক বছর পর এখন তাঁর ওজন ৬৫ কেজি। ছবিতে অভিনয়ের জন্য কমাতে হবে আরও ৮ কেজি। তাই তো মা হওয়ার আগের সেই ফিগার ফিরে পেতে কঠোর পরিশ্রম করছেন অপু। রাজধানীর একটি জিমে মাস খানেক ধরে নিয়মিত যাচ্ছেন। আজ শুক্রবার দুপুরে যখন ‘কোটি টাকার কাবিন’ ছবির এই নায়িকার সঙ্গে কথা হচ্ছিল, তখন তিনি জিমে ট্রেডমিলে দৌড়াচ্ছেন। বললেন, ‘ওজন এত বেশি বেড়ে গেছে যে নিজেকে ফিরে পাওয়ার মিশন শুরু করেছি।’

বিয়ে আর সন্তানের খবর প্রকাশের পর চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসের ওপর দিয়ে বেশ ঝড় বয়ে গেছে। এই ঝড় এমন পর্যায়ে পৌঁছায়, একসময় সংসারের ইতি পর্যন্ত ঘটে। ছবিতে অভিনয় থেমে যায়, তবে কয়েকটি টিভি অনুষ্ঠানে অংশ নেন। ঢালিউডের একসময়ের ব্যস্ত এই নায়িকা এখন মনোযোগী আবার নিজেকে আগের রূপে ফিরিয়ে নেওয়ার।

মা হওয়ার কয়েক মাস আগে হঠাৎ করে লোকচক্ষুর অন্তরালে চলে যান অপু বিশ্বাস। পরিবার আর কাছের কয়েকজন ছাড়া কারও সঙ্গে ঢালিউডের এই নায়িকার দেখা মিলত না। এর মধ্যে নানা উড়ো খবর আসে, মা হয়েছেন অপু বিশ্বাস। কিন্তু তাঁকে যখন খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না, তখন কেউ এ বিষয়ে নিশ্চিত হতে পারছিলেন না। একসময় অপু নিজেই ছয় মাস বয়সী একমাত্র সন্তান আব্রাম খানকে নিয়ে হঠাৎ হাজির হন টেলিভিশনের পর্দায়। তখন সবাই মুটিয়ে যাওয়া অপুকে দেখতে পান।

অপু জানান, ‘বিরতির পর যখন টেলিভিশনের পর্দায় হাজির হয়েছি, তখন আমার ওজন ছিল ৯৫ কেজি। এরপর ইচ্ছে থাকলেও নানা ব্যস্ততায় জিমে সময় দিতে পারিনি। এক মাস ধরে আমি খুব সিরিয়াস। ঠিক এই মুহূর্তে আমার ওজন ৬৫ কেজি। আমাকে আরও আট কেজি ওজন কমাতে হবে। প্রতিদিন জিমে নিয়মিত তিন ঘণ্টা করে সময় দিচ্ছি।’

আজ শুক্রবার দুপুরে ব্যায়ামাগারে অপু বিশ্বাস। ছবি: প্রথম আলোআজ শুক্রবার দুপুরে ব্যায়ামাগারে অপু বিশ্বাস। ছবি: প্রথম আলোউচ্চতা অনুযায়ী যতটা ওজন হওয়া উচিত, অপু এখন প্রায় তার কাছাকাছি চলে এসেছেন। অপু বলেন, ‘আরও কিছুদিন নিয়ম মেনে ব্যায়াম করতে হবে। তাহলে আগের ফিগারে ফিরে যেতে পারব। আরেকটি কথা, ব্যায়ামের সময় কোন স্টেপের পর কোনটি করছি, সেটা কিন্তু খুব গুরুত্বপূর্ণ। তাই ব্যায়ামের ক্ষেত্রে প্রশিক্ষকের সঠিক নির্দেশনা মেনে চলা উচিত। সাংসারিক কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকলে হয় সকালে, নয়তো বিকেলে জিমে যাই। এটা এখন আমার রুটিন হয়ে গেছে।’

জিমে নিয়মিত সময় দেওয়ার পাশাপাশি ডায়েট নিয়ে বেশ সচেতন অপু বিশ্বাস। দাওয়াতে গেলেও খাওয়ার লোভ সামলে নিতে হয়। অপু বলেন, ‘ফল খাওয়া বাড়িয়ে দিয়েছি। ভাত-রুটি এমনিতেই কম খাই। রাতের খাবারে চেষ্টা করি শুধু প্রোটিন।’

অপু জানান, শুধু জিমে সময় দিলেই চলবে না, নিজেকে মানসিক চাপ থেকেও মুক্ত রাখতে হবে। মাঝে অনেকটা সময় মনের ওপর দিয়ে ঝড় বয়ে গেলেও এখন আর ওসব নিয়ে মোটেও ভাবছি না। পুরোপুরি চাপমুক্ত থাকার চেষ্টা করছি।’

অপু জানান, শিগগিরই দেবাশীষ বিশ্বাস পরিচালিত ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ ২’ ছবির কাজ শুরুর মধ্য দিয়ে নতুন ছবির শুটিংয়ে ফিরবেন। এর মধ্যে শুটিং করেছেন বহুদিন ধরে আটকে থাকা ‘পাঙ্কু জামাই’ ছবির কাজ।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*