উবারের উড়ুক্কু ট্যাক্সি

উবারের ট্যাক্সি এবার আকাশপথেও চলবে। এ ব্যাপারে গতকাল বুধবার ঘোষণা দিয়েছে তারা। উবারের উড়ুক্কু ট্যাক্সি প্রকল্পে নাসার অংশীদারত্ব থাকবে। সড়কপথে চলা উবারের ট্যাক্সির ভাড়ার সঙ্গে সংগতি রেখে উড়ুক্কু ট্যাক্সির ভাড়া নির্ধারণ করা হবে।

উবারের মুখপাত্র ম্যাথু উইং এএফপিকে বলেন, প্রথম দিকে এ ফ্লাইটগুলোয় চালক থাকবে। ভবিষ্যতে এটি স্বয়ংক্রিয় হতে পারে।

উবারের এ ট্যাক্সিগুলোর উড্ডয়ন এবং অবতরণ প্রচলিত হেলিকপ্টারের চেয়ে ভিন্ন হবে। এটি আরও বেশি নিরাপদ, পরিবেশবান্ধব ও সহজ হবে। এর ভাড়াও হবে উবারের প্রচলিত সেবার মতোই।

উবারের নতুন এ প্রকল্প ‘উবারএয়ার’-এ শুরুতে ডালাস ফোর্ট-ওয়ার্থ, টেক্সাস ও দুবাইয়ের সঙ্গে যুক্ত হবে লস অ্যাঞ্জেলেস।

ক্যালিফোর্নিয়া ও টেক্সাস হলো যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে গাড়িবহুল অঙ্গরাজ্য।

 

উবারের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, নাসার ইউটিএম (আনম্যানড ট্রাফিক ম্যানেজমেন্ট) প্রকল্পে উবারের অংশগ্রহণ যুক্তরাষ্ট্রের নির্দিষ্ট শহরগুলোয় ২০২০ সালের মধ্যে পরীক্ষামূলক উড়ুক্কু ট্যাক্সি সেবা চালু করতে কোম্পানিকে সহায়তা করবে।

বিবৃতিতে বলা হয়, উড়ন্ত যাত্রীদের নতুন বাজার তৈরি করতে উবার নাসার সঙ্গে যুক্ত হওয়ার আরও সুযোগ চায়।

প্রাথমিকভাবে প্রদর্শনীমূলক ফ্লাইটগুলো ২০২০ সালের মধ্যে চালু করতে পারবে বলে আশা করছে উবার। বাণিজ্যিকভাবে এটি ২০২৮ সালের লস অ্যাঞ্জেলেস অলিম্পিক গেমস শুরু হওয়ার অনেকে আগে, ২০২৩ সালের মধ্যে চালু হতে পারে।

লস অ্যাঞ্জেলেস বিমানবন্দর থেকে স্ট্যাপলস সেন্টার অ্যারেনায় যেতে উবারের উড়ুক্কু ট্যাক্সিতে লাগবে মাত্র ২৭ মিনিট। যেখানে গাড়িতে সময় যেতে লাগে এর তিন গুণ বেশি।

 

প্রচারণামূলক এক সচিত্র ভিডিওতে দেখা যায়, উবারের উড়ুক্কু ট্যাক্সির অ্যাপটি বর্তমানে চালু থাকা অ্যাপের মতোই ব্যবহার করা যাবে।

 

পার্কি গ্যারেজের ওপরের অংশ, হ্যালিপ্যাড ও রোড ইন্টারচেঞ্জের ফাঁকা জায়গাগুলো উড়ন্ত এ বাহনগুলোর উড্ডয়ন, অবতরণ ও রিচার্জের জন্য ব্যবহৃত হবে।

 

About Rafi Abdullah

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*