গেইল ছিলেন বলেই..

একটা উপলক্ষ আগেই তৈরি ছিল। আরেকটি হলে আনন্দের ষোলোকলা পূর্ণ হতো সাকিব আল হাসানের। পাঁচ বছর আগে গাঁটছড়া বেঁধেছিলেন উম্মে আহমেদ শিশিরের সঙ্গে। কাল সেই ১২ ডিসেম্বর যদি জিততেন বিপিএলের শিরোপা, দুটি মিলিয়ে সাকিব পরিবার নিশ্চিত ভেসে যেত আনন্দের ঢেউয়ে। কিন্তু সব চাওয়া সব সময়ই যে পূরণ হয় না।

গত বিপিএলের ফাইনাল শেষে সাকিব আল হাসানের মুখে ছিল শিরোপা জয়ের হাসি। আর কাল সংবাদ সম্মেলনে এলেন পরাজয়ের হতাশা নিয়ে। মুখে তাঁর মেঘ-কালো আঁধার। আবেগ নিয়ন্ত্রণে সাকিবের তুলনা নেই। জিতলে অবশ্যই খুশি হন। হারলেও স্বাভাবিক থাকার চেষ্টা করেন।
কিন্তু কাল সাকিবকে দেখে শুধু পরাজিত অধিনায়কই মনে হয়নি, তাঁর মুখাবয়ব বলছিল, যেন বিরাট ‘অপরাধ’ করে ফেলেছেন! সাকিবকে হয়তো পোড়াচ্ছে গেইলের ওই ক্যাচটা। মোসাদ্দেক হোসেনের বলে রংপুরের ক্যারিবীয় ওপেনার যখন এক্সট্রা কাভারে সাকিবের হাতে ক্যাচ দেন, তাঁর রান তখন ২২। গেইলের ক্যাচটা চকিতে হাতে জমাতে না পারার কত বড় মূল্য দিতে হয়েছে ঢাকা ডায়নামাইটসকে, সেটি তো দেখাই গেল। সাকিব ক্যাচ নয়, যেন শিরোপাটাই ফেলে দিয়েছেন!
সংবাদ সম্মেলনের শুরুতে হারের ব্যাখ্যায় সাকিব কোনো ভূমিকা না করেই বললেন, ‘আমার ক্যাচ মিস! বোলিংটা ভালো করতে পারিনি। গেইলের বিপক্ষে আমরা ভালো জায়গায় বোলিং করতে পারিনি। আরও এক-দুটি সুযোগ পেলে কিছু করতে পারতাম। কিন্ত সুযোগটা আর আসেইনি।’
গেইলের মতো ব্যাটসম্যান সুযোগ পেলে কী করতে পারেন, ঢাকার বোলাররা সেটা কাল হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছেন! অথচ ঢাকার শুরুটা দুর্দান্তই ছিল। শুরুতে সাকিব নিজেও অসাধারণ বোলিং করেছেন। অথচ যেই গেইল যখন খুনে মেজাজে ব্যাটিং শুরু করলেন, আর আক্রমণে এলেন না প্রথম ২ ওভারে ১ মেডেন ৭ রান দিয়ে ১ উইকেট পাওয়া সাকিব। এলেন ইনিংসের শেষ ওভারে। দিলেন ১৯ রান।
ইনিংসের মাঝে কেন আসেননি বা ৪ ওভারের কোটা পূরণ করেননি টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি সাকিব? ঢাকা অধিনায়ক বললেন, ‘গেইল আউট হলে অবশ্যই করতে পারতাম (আরেকটা ওভার)। গেইল যতক্ষণ ছিল, ওই সময় আমার বোলিং করা কঠিন। যেহেতু আমি বাঁহাতি স্পিনার, আমাকে খেলা ওর জন্য তুলনামূলক সহজ। এ কারণে শেষ ওভার পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়েছে, যেটা আমাকে করতেই হতো।’
শক্তিমত্তায় ঢাকা-রংপুর সমানে সমানই ছিল। তারকায় ঠাসা দুটি দলের কাছে রোমাঞ্চকর এক ফাইনালই প্রত্যাশিত ছিল। কিন্তু ম্যাচটা একপেশে করে দিলেন একজন—ক্রিস্টোফার হেনরি গেইল! ঢাকা-সমর্থকেরা অবশ্য বলতে পারেন, গেইল নন, ম্যাচ বদলে দিয়েছে ফসকে যাওয়া সাকিবের ক্যাচ!

About Rafi Abdullah

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*