পাইকারি বাজারে দাম কমেছে ইলিশের, আরো কমবে

সরেজমিন দেশের অন্যতম ইলিশের পাইকারি বাজার সোয়ারীঘাট ঘুরে জানাগেছে, স্বাদের ইলিশ বরিশালের জয়ন্তি ও আড়িয়াল খাঁর। এ মাছের দামও বেশি। বর্তমানে কিছু কমে এসেছে। ১ কেজি ওজনের মাছ হালিতে ৪ হাজার টাকা আর ১ কেজির বেশি হলে ৬ হাজার টাকা রাখা হচ্ছে। আর ৬ থেকে ৭ গ্রাম ওজনের মাছ হালিতে ৩ হাজার টাকা রাখা হচ্ছে। তবে এই দাম আমদানির ওপর নির্ভর করে।

ঢাকায় ইলিশের পাইকারি বাজার হচ্ছে যাত্রাবাড়ী, নিউমার্কেট, সোয়ারীঘাট, মুগদা ও কারওয়ান বাজার। যে বাজারে আমদানি বেশি সে বাজারে দাম কম। সোয়ারীঘাটে আমদানি যেদিন কম থাকে সেদিন দাম অনেক বেড়ে যায়। এক্ষেত্রে আমদানি প্রতিদিনই বেশি হওয়ায় যাত্রাবাড়ীতে দ‍াম প্রতিদিনই তুলনামূলক কম থাকে। অনেক তাই যাত্রাবাড়ী থেকে মাছ কিনে আমদানি কম এমন পাইকারি বাজারেও বিক্রি করেন।

জানাগেছে, বর্তমানে সবচেয়ে বেশি মাছ আসছে মনপুরা দৌলতখান ও হাতিয়া থেকে। এসব এলাকার ইলিশ মাছের দাম কম। আর চাঁদপুর, বরিশাল ও কক্সবাজারের মাছও আসে রাজধানীর বাজারে। কিন্তু স্বাদ ও দামে বেশি বরিশালের ইলিশ।

পদ্মার ইলিশ রাজধানীতে আসে না বললেই চলে। কারণ এতো কম ধরা পড়ে যে ওগুলো রাজশাহীতেই শেষ হয়ে যায়।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, ইলিশ গত সপ্তাহের চেয়ে বেশি ধরা পড়লেও মৌসুম অনুযায়ী কম। তবে কোরবানির ঈদের আগে বেশি ধরা পড়বে। তখন দাম আরো কমবে।

আড়তদার মোহাম্মদ হাসান শরীফ বাংলানিউজকে বলেন, উৎসে মাছের দাম তুলনামূলক কমলেও পাইকারি বাজারে খুব কমেনি। কেজিতে এক থেকে দুই টাকা মাছের সাইজ অনুযায়ী কমেছে। তবে এটা সম্পূর্ণ নির্ভর করে আমদানির ওপর।

মোহাম্মদ শাহীন নামের আরেক আড়তদার জানান, অনেকে ৩ হাজার টাকার মাছ ২ হাজার ৮শ টাকায় বিক্রি করেন যেদিন আমদানি বেশি। একই দিন অন্য পাইকারি বাজারে আমদানি কম হলে একই নদীর একই ওজনের মাছ ৩ হাজার টাকায় কিনে ৪ হাজার টাকায় বিক্রি করেন। তাই পাইকারি বাজারের দাম নির্ভর করে আমদানির ওপর।

ইলিশের দাম সার্বিকভাবে কমতে শুরু করেছে। আগামী মাসের শুরুর দিকে আরো অনেক কমে যাবে-যোগ করেন তিনি।

About Kuy@s@News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*