মারা গেলেন মৃত্যুর আবেদনকারী সবুর মিয়া

জেলা প্রশাসকের কাছে মৃত্যুর আবেদনকারী ডুফিনি মাসুকুলার ডিসট্রফি (ডিএমডি) রোগে আক্রান্ত মেহেরপুর শহরের বেড়পাড়ার তোফাজ্জেল হোসেনের বড় ছেলে সবুর মিয়া মারা গেছেন। আজ শনিবার দুপুরে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

সবুর মিয়ার পারিবারিক সূত্র জানায়। অবস্থার অবনতি হলে আজ শনিবার সকালে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয় সবুর মিয়াকে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুরে হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আবু এহসান রাজু তাকে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে বিকেলে মেহেরপুরের জেলা প্রশাসক পরিমল সিংহ সবুর মিয়ার মৃতদেহ দেখতে যান। এ সময় তিনি সবুরের বাবা-মাসহ পরিবারের সদস্যদের সান্তনা দেন।

চলতি বছরের ১৯ জানুয়ারি সন্তান ও নাতির মৃত্যুর অনুমতি চেয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদন করেছিলেন তোফাজ্জেল হোসেন। ওই ঘটনাটি কালের কণ্ঠসহ দেশ ও বিদেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমে ব্যপক আলোড়ন সৃষ্টি করে। এরপর থেকে দেশ ও বিদেশের বিভিন্ন সংগঠন, চিকিৎসক তাদের চিকিৎসায় সহযোগিতা করে।

ভারতের একটি হাসপাতালে তাদের  চিকিৎসাও শুরু হয়। অবশেষে সবকিছুকে ব্যর্থ করে দিয়ে আজ শনিবার দুপুরে মৃত্যুকে আলিঙ্গন করেন সবুর মিয়া। একই রোগে আক্রান্ত হয়ে শয্যাশায়ী তোফাজ্জেলের ছোট ছেলে রায়হান ও নাতি সৌরভ (৮)।

About Kuy@s@News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*