চার দিন আগেই হামলার পরিকল্পনার ব্যাপারে নিশ্চিত হন গোয়েন্দারা

জাতীয় শোক দিবস বা জন্মাষ্টমীর র‌্যালিতে জঙ্গি হামলা হতে পারে এমন তথ্য আগেই ছিল গোয়েন্দাদের কাছে। কিন্তু নানা খোঁজ-খবর করেও সুনির্দিষ্টভাবে নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছিল না। গত চার দিন গোয়েন্দারা নিশ্চিত হন জঙ্গিরা পরিকল্পনা থেকে পিছু হটেনি। এই দুই কর্মসূচির একটিতে তারা হামলা চালানোর চূড়ান্ত প্রস্তুতি নিয়েছে। এ কারণে জন্মাষ্টমীর র‌্যালিতে ছিল নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা। তখন থেকেই গোয়েন্দারা শোক দিবসের কর্মসূচি ঘিরে নাশকতার পরিকল্পনা বিষয়ে তল্লাশি শুরু করেন। ধানমন্ডি ৩২ নম্বরের আশপাশের সবগুলো হোটেলে চালানো হয় কঠোর তল্লাশি। এর মধ্যেই গতকাল মঙ্গলবার ভোরে আবিষ্কার হয় হোটেল কক্ষে জঙ্গির অবস্থান।
পুলিশ সদর দফতরের এআইজি (ইন্টেলিজেন্স এন্ড স্পেশাল অ্যাফেয়ার্স) মনিরুজ্জামান ইত্তেফাককে বলেন, ‘আমরা আগে থেকেই কিছু তথ্য পেয়েছিলাম। সে কারণে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরের আশপাশের হোটেলগুলোতে কঠোর তল্লাশি করতে সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশকে নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। তবে ওই জঙ্গিকে সনাক্ত করা না গেলে বড় দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারত?’
গতকাল ভোরে চারতলা ওই ভবন ঘিরে ফেলার পর পুলিশের আত্মসমর্পণের আহ্বানে সাড়া না দিয়ে খুলনা থেকে আসা ওই তরুণ সুইসাইড ভেস্টে বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আত্মঘাতী হয়। অভিযান শেষে বেলা ১১টার দিকে আইজিপি শহীদুল হক এবং পরে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, দুই দিন আগে তারা তথ্য পান যে এ মাসেই বড় ধরনের নাশকতার পরিকল্পনা করছে জঙ্গিরা। এর ভিত্তিতে বিভিন্ন হোটেল ও মেসে তারা তল্লাশি চালানো শুরু করেন। আমাদের কাছে ইনফরমেশন ছিল, যে চক্র হামলা করবে, তারা খুব কাছাকাছি অবস্থান করছে। গতকাল সন্ধ্যায় তথ্য পেলাম, ১৫ আগস্টকে কেন্দ্র করে অনেক বড় ধরনের নাশকতা ঘটানো হবে। আরো জানতে পারি, মিরপুর রোড ও পান্থপথ-ওই এলাকাতেই তারা থাকবে।
চ র দ ন আগ ই হ মল র পর কল পন র ব য প র ন শ চ ত হন গ য় ন দ র চার দিন আগেই হামলার পরিকল্পনার ব্যাপারে নিশ্চিত হন গোয়েন্দারা
Loading...
Previous: ভুয়া জন্মদিন পালন বন্ধ না করলে আলোচনা নয়: কাদের
Next: যমুনায় পানি বৃদ্ধিতে শত বর্ষের রেকর্ড

About Kuy@s@News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*